পুরান ঢাকা বলতেই সবার আগে কি ভেসে উঠে চোখে? উত্তর যে খুবই কমন- সারি সারি খাবারের দোকার আর তাতে মুখরোচক খাবারের পসরা। আদিকাল থেকেই পুরান ঢাকার লোকজন বেশ ভোজনরসিক। তাই নানান স্বাদ আর নানান বাহারের খাবাবের মেলা বসে প্রতিদিন পুরান ঢাকার চকবাজার, লালবাগ, চানখারপুল, নাজিমুদ্দিন রোডে। মসলাদার খাবার এখানে বেশি জনপ্রিয়। যদি আপনি ঘুরতে ভালোবাসার পাশাপাশি ভোজনরসিক হয়ে থাকেন, তবে পুরান ঢাকা হতে পারে আপনার জন্য দারুণ একটি জায়গা।পুরান ঢাকার বিখ্যাত ১০টি খাবার নিয়ে লেখার দ্বিতীয় পর্বে আজ চলুন জেনে নেই আরো ৫টি বিখ্যাত খাবারের কথা-

১। মোরগ পোলাও

শুধু কাচ্চি নয়, পুরান ঢাকার মানুষের আতিথ্যে আরেক ভালোবাসার নাম শাহী মোরগ পোলাও। দুপুর ও রাতের খাবারে কাচ্চি ছাড়াও অনেকেই খেয়ে থাকেন মোরগ পোলাও। এছাড়াও অতিথিদের আপ্যায়নের জন্য মোরগ পোলাও থাকে খাবারের লিস্টে। একবারের জন্য হলেও শাহী মোরগ পোলাওয়ের অসাধারণ স্বাদ নিতে চাইলে আপনার আসতে হবে পুরান ঢাকায়। চাঁনখারপুল, নাজিরা বাজার, নাজিম উদ্দিন রোড, লালবাগ মোড় ও জিঞ্জিরা এই জায়গাগুলোতে পেয়ে যাবেন দারুণ কিছু হোটেল।

২। মালাই চা

মালাই চায়ের জন্য পুরান ঢাকার খ্যাতি কম না। পুরান ঢাকার প্রায় সব গলিতেই পাওয়া যায় মালাই চা। মালাই চা বানানোর ক্ষেত্রে দোকানিরাও বেশ যত্নবান। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের পেছনে রয়েছে বেশ কিছু চায়ের দোকান। এছাড়াও বকশিবাজার, শাঁখারিবাজার, তাঁতিবাজার ইত্যাদি জায়গাগুলোতে বেশ ভালো স্বাদের মালাই চা পাওয়া যায়।

৩। পুরি

‘ভাজা’ বা ফ্রাই ধরনের খাবারের আলাদা বিশেষত্ব রয়েছে পুরান ঢাকায়। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য পুরি। এখানে নানা রকমের পুরি পাওয়া যায়। আলু পুরি, ডাল পুরি, কিমা পুরি, মাংস পুরি, টাকি মাছের পুরি, সবজির পুরি সহ আরো নানা রকমের পুরি তৈরি হয় এখানে। পুরিগুলোকে পরিবেশন করা হয় বিশেষ রকমের ঝোল ও সালাদের সাথে। পুরান ঢাকার হোটেল ও ফুটপাতের বেশ কিছু দোকানে পাবেন নানা স্বাদের এই পুরির দেখা।

৪। মিষ্টি

পুরান ঢাকায় আছে ঐতিহ্যবাহী বেশ কিছু মিষ্টির দোকান। সেখানে তৈরি হয় নানা রকম মিষ্টি। সবখানে পরিচিত সাধারণ কিছু মিষ্টির বাইরেও আছে জাফরান মিষ্টি ও শাহী চাপ মিষ্টি, যা অত্যন্ত জনপ্রিয়। পুরান ঢাকার লালবাগ কেল্লার মোড়ে মদিনা মিষ্টান্ন ভাণ্ডার বেশ জনপ্রিয়। এছাড়াও পুরান ঢাকার আরো বেশ কিছু জায়গায় পাওয়া যায় এই বিশেষ মিষ্টিগুলো।

৫। ফুচকা

 

আপনি যদি ফুচকা ভালোবাসেন তবে আপনার উচিত পুরান ঢাকার ফুচকা একবারের জন্য হলেও খাওয়া। এখানের ফুচকার স্বাদ অন্যান্য জায়গার ফুচকা থেকে একেবারেই আলাদা। ফুচকায় পাবেন বিভিন্ন মসলার স্বাদ, টকেও পাবেন বৈচিত্র্য। শুধু মিষ্টি টক কিংবা ঝাল টক না, এখানে পাবেন আরো নানা রকম নতুন নতুন টকের স্বাদ। পুরান ঢাকার বিভিন্ন জায়গায়, গলিতে গলিতে পাওয়া যায় ফুচকা, যার স্বাদ কখনোই হতাশ করবে না। তবে চকবাজারের রাস্তার পাশে বেশ কিছু ছোট্ট দোকান রয়েছে, যেখানে পাবেন সেরা ফুচকার সন্ধান। তবে আপনার মতো ভোজনরসিকদের ভিড় ঠেলে বেশ সময় নিয়ে হাতে পেতে হবে ফুচকার থালাটি।

SHARE

LEAVE A REPLY