শাহবাগ থেকে হেঁটে যখন ক্লাস রুমের যাচ্ছিলাম তখন একটা জায়গায় দেখি একজনকে ঘিরে অনেক মানুষের ভিড়। কি করেন তিনি? জাদু দেখায়? হাঁঅনেকটাই তাই। তার সামনে গিয়ে দেখি তিনি স্ট্রবেরীর জাদু দেখাচ্ছেন। ১০ টাকাতেই স্ট্রবেরি ভর্তা করে টুথপিক লাগিয়ে সার্ভ করে দিচ্ছে। মানুষ খাচ্ছে আর ছবি তুলছে। আমিও খেলাম ছবি তুললাম তবে অবাক হলাম।

শুধু কি স্ট্রবেরী ভর্তা? না,আরেকটু সামনে হাঁটতে যখন আমি কলা ভবনের একটু আগে সেখানে গিয়ে দেখি আরেক জাদুকরতবে তিনি কাচা কলা ভর্তার জাদুকর তবে এটাকে একটু বেশি মনে হচ্ছিল,তবু ব্যাপারটা কি ঘটছে দেখার জন্য অর্ডার করি। দাদা দাদুদের পান সুপারি খাওয়ার এক যন্ত্রে তিনি কাচা কলা মরিচ লবণ দিয়ে বেটে হাতে ধরিয়ে দিচ্ছেন। তবে আমার জিব্বা ব্যাপারটা ভালভাবে নেয়নি কিন্তু আমার সাথের সবাই এই কাচাকলার ভর্তা ব্যাপারটা খুব উপভোগ করে।

আরেকটু সামনে আগাতেই একটা জায়গার নাম ক্যাম্পাস স্যাডো সেখানে তো একদম খাবার দাবার এর উৎসব। লুচি আর ডাল এই শহরে যেখানে প্রায় পলাতকই বলা যায় সেখানে লুচি আর ডাল মাত্র ১০ টাকায়। আর পানীয় হিসেবে পাবেন ঠাণ্ডা লেবুর শরবত লেবুর শরবত এর বরফ যখন গলতে পানি হয়ে যাবে তখন দেখবে পাশ থেকে আপনাকে আইসক্রিম ডাকছে, আপনি এই যে আসছি বলেই আইসক্রিম নিয়ে একটু হাঁটতে থাকুন পুরো ক্যাম্পাস।

হাঁটতে হাঁটতে চলে যান টিএসসি ক্যাফেটেরিয়া ২০ টাকার পোলাও মাংস আপনাকে স্বাগতম জানাবে। অনেকের ধারণা মোশারফ করিম প্রথম বার আবেগে কেদেছিলেন এই ২০ টাকায় পোলাও মাংস খেয়েই। অনেকে ভাবতে পারেন ২০ টাকাতেই পোলাও মাংস? সত্যি? কসম? আরে কসম কাটার দরকার নেই,এক দুপুরে নিজেই চলে যান না।

তবে আরেকটা জিনিশ নিজ চোখেই দেখবেন এক টাকার চা না এটা কোন মুভির নাম না। এখনো চা এক টাকায় যে পাওয়া যায় তা টিএসসি না গেলে কেউ জানবেনা। আর আপনি যদি দুর্বল চিত্তের না হন আর যদি মৃত্যুর ভয় না থাকে তবে মরিচ চা পান করে দেখতে পারেন।মরিচ চা, মাল্টা চা থেকে শুরু করে যেই চা আপনি খেতে চান সবই পাবেন। পাবেন সবই কিন্ত আপনার শরীর যদি এই এক্সপেরিমেন্টাল চা গুলাকে সিরিয়াসলি নেয় তবে বিপদ। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে কতজন ছাত্রছাত্রী কতজন প্রেমিক প্রেমিকা তা হিসাব করা গেলেও আপনি হিসাব করতে পারবেন না কত গুলা আজব মজার খাবারের দোকান আছে।

SHARE

LEAVE A REPLY