শহর জুড়েই রয়েছে হরেক কাচ্চির দোকান। কিন্তু তার মধ্যে কিছু দোকানে সারা বছর পুরো মৌসুম ধরেই যেন লেগে থাকে ক্রেতা-ভোজনরসিকদের বিপুল ভিড়। জেনে নেয়া যাক শহর জুড়ে এমন কিছু নামকরা কাচ্চির দোকানের কথা যা আজ স্থান করে নিয়েছে সবার পছন্দের তালিকার শীর্ষে ।

# সুলতানস ডাইনঃ

আপনি কাচ্চি প্রেমিক হউন আর নাই হউন, সুলতানস ডাইন নিঃসন্দেহে একজন কাঠখোট্টা মানুষের মনেও জাগিয়ে তুলতে পারে কাচ্চির প্রতি গভীর প্রেমের আলোড়ন। তুলতুলে মাংসের সাথে অপূর্ব বাসমতী পোলাও এর গন্ধ আপনার মনকে ভরিয়ে দিবে অপুলক এক গভীরতায়, যার শেষটা হবে ফিরনির নরম পরশ বুলানো ছোঁয়াতে। বাসমতী পোলাও এর মোহনীয় স্বাদ আর মাংসের পরিমাণই এর অনন্য বৈশিষ্ট।

# ট্র্যাডিশন বিডিঃ

কাচ্চির প্ল্যাটার বিবেচনায়ে সবারই পছন্দের তালিকার শীর্ষে রয়েছে ট্র্যাডিশন বিডি। আপনার পরিপূর্ণ আহার সম্পন্ন করতে যেসব চাহিদা থাকতে পারে তার সবই মেটাতে সক্ষম এই আকর্ষনীয় প্ল্যাটারটি। খেতে খেতে আপনি কখনোই কিছুর অভাব বোধ করবেন না। কারণ, ৫৭০ টাকার একটি খাসির প্ল্যাটারের মধ্যে পাচ্ছেন কাচ্চি, রোস্ট, জর্দা, বোরহানি, সালাদ এবং চাটনি। লোকমুখে শোনা যায়, কাচ্চির স্বাদ বহু মানুষকেই বাধ্য করে অতিরিক্ত অর্ডার করার জন্য।

# গ্র্যান্ড নাওয়াবঃ

কাচ্চি বিরিয়ানির আরেক প্রতিশব্দ যেন পুরান ঢাকা। পুরনো কাল থেকেই কাচ্চি বিরিয়ানির জন্য খ্যাতি বহন করে এই ঐতিহ্যবাহী স্থানটি। তার মধেই আলাদা করে বলতে হয় গ্র্যান্ড নাওয়াব এর কথা। কাচ্চির পাশাপাশি এদের সরবরাহ করা পেস্তা বাদামের সরবত অনেকেরই আকর্ষনের কেন্দ্রবিন্দু। কাচ্চি মানেই পুরান ঢাকা এই প্রবাদের উপযুক্ত প্রমাণ গ্র্যান্ড নাওয়াব।

# হান্ডিঃ

দেশে বসেই যদি হায়াদ্রাবাদি বিরিযানির ফিলিংস নিতে চান, তবে সোজা চলে যান গুলশান ২, হান্ডিতে। মনোরম পরিবেশ, নিয়ন্ত্রিত দাম এবং সরবোপরি কাচ্চির সুস্বাদ, আপনার অভুক্ত মনকে ভরিয়ে তুলবে তৃপ্তিতে। মন জুড়ানো স্বাদ এবং গন্ধের জুটি আপনাকে দিবে সুখের এক হায়াদ্রাবাদি অনুভব।

# কোলকাতা কাচ্চিঘরঃ

নাম শুনে বিভ্রান্ত হবেন না, শুনতে ভারতীয় মনে হলেও সম্পূর্ণ দেশী কাচ্চির আবাসস্স্থল এই কোলকাতা কাচ্চিঘর। পুরান ঢাকার কাচ্চি ঐতিহ্যের আরেক প্রমাণ সাত রওজা রোডের এই কাচ্চিঘর। মেকাপ ছাড়া অনেক মেয়েকেই অনেক মেয়েকেই হয়তো আপনি পছন্দ করবেন না, কিন্তু কোনরকম মেকাপ ছাড়াই এই কাচ্চির রূপ আপনাকে পাগল করে দিবে। তার সাথে মাংসের বিশাল সাইজ মনকে করবে বিমোহিত। ১৬০ টাকার একটি কাচ্চি খেয়ে আনমনেই তুলবেন তৃপ্তির ঢেঁকুর।

 # রয়্যাল রেস্টুরেন্টঃ

লালবাগ কেল্লার ঐতিহ্যের মতই এখানকার আরেক গৌরব এই রয়্যাল রেস্টুরেন্ট। ১৫০ টাকার এক কাচ্চি খেতে কখনোই আপনি ক্লান্ত হবেন না বরং মনটা আরও ভালো হয়ে যাবে যখন খাবেন তাদের ফ্রি সুস্বাদু টিকিয়ার সাথে। সাথে যদি নিতে চান তরকারী তবে এখানে পাবেন উন্নত স্বাদের গিলা ভূনা, কালা ভূনা ও মুরগির স্যুপ আর সাথে পেস্তাবাদামের শরবত সবমিলিয়ে আপনি পাবেন এক রয়্যাল অভিজ্ঞতা।

# বিসমিল্লাহ বিরিয়ানীঃ

মিরপুরবাসীদের বিরিয়ানীর জন্য নির্ভরযোগ্য এক বিরিয়ানীর ঠিকানা বিসমিল্লাহ বিরিয়ানী। মনরোম পরিবেশ, সুস্বাদু খাবার আর গ্রহণযোগ্য দাম, এই তিনের সমন্বয়ে এই বিরিয়ানী আপনাকে দেবে বিরিয়ানীর এক শান্তির অনুভূতি। মিরপুর ১২ নং এর অবস্থিত খোলামেলা দোকানে সময় পেলে বন্ধুদের সাথে গিয়ে সেরে আসতে পারেন দুপুরের লাঞ্চ কিংবা রাতের খাবার।

কাচ্চির জন্য এই জায়গাগুলো হতে পারে আপনার নির্ভরযোগ্য স্থান।

LEAVE A REPLY