ঢাকা শহরের ঐতিহ্যবাহী খাবার গুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য একটি হল চাপ। তাই চাপ কমাতে জেনে নেয়া যাক সেই সব রেস্তোরার কথা যেখানে প্রায়শই ভোজনরসিকদের চাপ নিয়ে চাপাচাপি করতে আনাগোনা দেখা যায়।

# শওকত কাবাব ঘরঃ

মিরপুরবাসীদের চিরন্তন আক্ষেপ তাদের স্থানীয় ভালো চাপের দোকান নেই, চাপের জন্য তাদের বাসে বা গাড়িতে চেপে যেতে হচ্ছে অন্য এলাকায়। মিরপুরবাসীদের চাপ কমাতেই কিনা শওকত কাবাব ঘরের আবিরভাব। এদের বিফ চাপকে ধরা হয় ঢাকা শহরের অন্যতম সেরা চাপগুলোর একটি। এছাড়াও এই দোকানের চিকেন চাপ, জালি কাবা, গুলি কাবাবের রয়েছে বিপুল চাহিদা। সুলভ মূল্য ও দ্রুত খাবার সরবরাহ এ দুয়ের সমন্বয়ে যেন অল্প সময়ে ভোক্তাদের মন জয় করেছে রেস্তোরাটি।

# চাপ সামলাওঃ

স্বাদ বা গন্ধ যেকোনো বিবেচনাতেই সবার আগে এগিয়ে থাকার মতো একটি নাম চাপ সামলাও। ধানমন্ডির এই দোকানটিতে প্রতিনিয়ত এতটাই ভিড় লেগে থাকে যে, ক্রেতাদের সামলাতে রীতিমত বেশ চাপ সামলাতে হচ্ছে দোকানটির। চাপের দাম তুলনামূলক বেশি হওয়া সত্ত্বেও এর অনন্য স্বাদ ও গুণগত মান রেস্তোরাঁটিকে তুলে দিয়েছে জনপ্রিয়তার শীর্ষে। এর আরেকটি উল্লেখ্য ব্যপার হলো, এদের দোকানের চায়ের স্বাদ। চাপ বাদ দিলেও বিপুল সংখ্যক ক্রেতা রেস্তোরাঁটিতে ভীড় জমান শুধু চা খাওয়ার উদ্দেশ্যে।

# চাপ ঘরঃ

উত্তরায় চাপের দোকানের নাম জিজ্ঞাসা করলেই মুহূর্তেই উত্তর আসে আসে চাপ ঘরের। গভীর বিশ্লেষণে দেখা যায় যে, উত্তর মোটেও ভুল নয়। দামে কিছুটা বেশি হলেও এদের স্বাদ নিয়ে কোন প্রশ্ন করার জায়গা নেই। তবে চাপের স্বাদই শুধু নয়, চাপের সাইজ এবং এদের দোকানের লেবু পানিও এদের জনপ্রিয়তার অন্যতম কারণ। তবে আগে থেকে জানিয়ে রাখা ভালো চাপ ঘরে গেলে হাতে সময় নিয়ে যাওয়া উত্তম, কারণ এখানে প্রায় সারাক্ষণই লেগে থাকে তুমুল ভীড়।

# জিভে জল কাবাব মে হাড্ডিঃ

যদি হয়ে থাকেন কাবাব প্রেমিক এবং রাজি থাকেন সুস্বাদু কাবাবের রসনা উপভোগ করতে তবে এই লেখা পড়া বাদদিন, গায়ে হালকা চালের পোশাক পড়ে বেড়িয়ে পড়ুন বাসাবোর উদ্দেশ্যে, যেখানে বিশ্বরোডের একটু ভেতরেই গেলে পেয়ে যাবেন “জিভে জল কাবাব মে হাড্ডি”। দোকানের নাম “জিভে জল কাবাব মে হাড্ডি” হলেও আপনার আর কাবাবের ভালোবাসার মাঝখানে আসতে পারবে না কেউই। তবে চাপের ক্ষেত্রে এরা কাউকেই ছেড়ে কথা বলে না। গরু-মুরগি তো আছেই, এরা বাদ দেয়নি, কোয়েল-কবুতর কেও। দাম নিয়ে কোন চাপ নেই। সবরকম চাপের মূল্য ৮০-১০০ টাকার মধ্যেই।

 # মোস্তাকিম ভ্যারাইটি কাবাব এন্ড স্যুপঃ

চাপকে যদি প্রশ্ন করা যেত, তোমার আব্বুর নাম কি? নিঃসন্দেহেই চাপ বাবাজি বলতো মোস্তাকিমের নাম। ১৯৮২ থেকে ২০১৮, ধারাবাহিকতার সাথে সুস্বাদু চাপ সরবরাহ করে যাচ্ছে মোহাম্মদপুরে অবস্থিত দোকানটি। গরু কিংবা খাসি, যেকোন ধরণের চাপই আপনার মুখে ফোটাবে হাসি। তবে শুধু চাপই নয়, আরও পাবেন মগজ, কলিজা, স্যুপ ও টিক্কার মত জিভে জল এনে দেয়া খাবার। দাম তুলনামূলক বেশি হলেও, স্বাদ আপনার মনকে করবে সন্তুষ্ট। খেয়ে নিজে থেকেই বলে উঠবেন, মোস্তাকিমের চাপ আবার জিগায়।

তো আর দেরী কিসে আজই হয়ে যাক হালকা একটু চাপাচাপি।

LEAVE A REPLY